মিঠাপুকুরে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে আলোচনায় শতাধিক প্রার্থী

মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৬, ২০২১

মিঠাপুকুর উপজেলায় তফসিল ঘোষণার আগে দলীয় মনোনয়ন (নৌকা) পেতে মাঠে নেমে পড়ছেন প্রায় শতাধিক ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী। বর্তমান চেয়ারম্যানদের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা মাঠে নেমে বিভিন্ন সভা, সমাবেশ পোস্টার-ফেস্টুন লাগিয়ে জোর প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মিঠাপুকুর আওয়ামী-লীগ উপজেলা কমিটি আবার দুভাগে বিভক্ত। একটি হচ্ছে বর্তমান সংসদ সদস্য,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কোষাধক্ষ্য এইচ এন আশিকুর রহমান ও তার ছেলে রাশেক রহমানের নেতৃত্বে গঠিত উপজেলা কমিটি এবং অন্যটি হচ্ছে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সরকার সমর্থিত কমিটি।

উভয় কমিটির নেতাকর্মীরা স্ব-স্ব নেতার ছবি টাঙ্গিয়ে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে নৌকার দাবি জানিয়ে মাঠে নেমে পড়ছেন। যদিও দলীয় নেতকর্মীরা বিষয়টি নিয়ে তফসিল ঘোষণার পর আলোচনা করবেন বলে একাধিক নেতা অবগত করেছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার সাদাত লিমন আমার সংবাদকে জানান, এবার ইউপি ভোটে যারা পরিশ্রমী এবং ত্যাগী নেতা, বিভিন্ন সময়ে দলের পাশে ছায়ার মতো ছিলেন তাদের নৌকা মার্কা দেয়া হবে। যারা বিভিন্ন সময়ে নানাবিধ অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়েছেন,দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন, তাদের মনোনয়ন দেয়া হবে না।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান,জাকির হোসেন সরকার আমার সংবাদকে জানান, বর্তমান আওয়ামী লীগের বৈধ কমিটি ঠিক করবে কাকে মনোনয়ন দেয়া যাবে না যাবে? ত্যাগী আর দলের প্রতি যারা সব সময় আনুগত্য ছিলো তাদের মূল্যায়ন করা হবে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটি মনোনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী কয়েকজনের সঙ্গে কথা হলে ০৩ নং পায়রাবন্দ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, মনোনয়ন প্রতাশী, রফিকুল ইসলাম (মাষ্টার) বলেন, আমি এমপি স্যারের দোয়া ও রাশেক রহমান ভাইয়ের দিক নির্দেশনায় কাজ করছি। আমি নৌকা (মার্কা) পাব।

বর্তমান ০৯ নং ময়েনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক আমার সংবাদকে বলেন, আমি সৎ ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি। জনগণের বিপদে আপদে পাশে ছিলাম। আশা করি আমার সততার মূল্যায়ণ হবে।