বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী সুরাত আলী নৌকায় আশাবাদী

রবিবার, অক্টোবর ১৭, ২০২১

বাগমারা (রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও বাগমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির অন্যতম সদস্য মোঃ সুরাত আলী প্রামনিক এবারে ইউপি নির্বাচনে গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের নৌকার হাল ধরতে চান। তিনি আওয়ামীলীগ পরিবারের একজন সদস্য। তার পরিবারে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ছাড়া অন্য কোন রাজনৈতিক দলের সদস্য নেই। তিনি ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িয়ে পড়েন। তিনি ১৯৬৯ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন এবং তখনকার সময় তিনি গণঅভ্যুত্থান অংশগ্রহন করেন। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রত্যক্ষভাবে মুক্তিযুদ্ধের সহযোগিতা করে থাকেন। তিনি ২০০২ সালে গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও ২০০২সালে বাগমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৩ইং সালে বাগমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং ২০২০ সালে বাগমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বিগত ১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় সর্মথনে প্রথমবারের মতো গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে অংশ গ্রহন করে পরাজিত হন। পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় সমর্থনে ১৯৯৭ এবং ২০১১ইং সালে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশ করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৬ সালে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়া দলীয় প্রার্থীর পক্ষে সরাসরি সহযোগিতা করে বিশেষ ভুমিকা পালন করেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক মোঃ সুরাত আলী প্রমানিক প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে সততা নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি অত্যন্ত মেধাবী, নম্র, ভদ্র,বিনয়ী,এবং বঙ্গবন্ধুর আর্দশে বিশ্বাসী পর উপকারী মানুষ। বর্তমান সময়ে ও ব্যাপকভাবে মানুষের পাশে থেকে নিজ তহবিল থেকে সেবামূলক কাজ করে যাচ্ছেন । তাহার কিছু নমুনা ইতি মধ্যে পেয়েছে যাহা বাস্তবে প্রতিফলিত এবং এলাকা বাসীর মুখেমুখে।

তিনি গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন তথা আশে পাশের সব মসজিদ,মাদ্রাসা,ঈদগাহ ময়দান এবং স্থানীয় ছোট রাস্তার উন্নয়ন কাজের জন্য একাধিকবার সহযোগিতা করেছেন। তাছাড়া এলাকার অনেক বিধবা,এতিম,অসুস্থ মানুষের পাশে সর্বদা থাকছেন এবং তাদেরকে বিভিন্ন সময় সহায়তা করেছেন ।তাই গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ সুরাত আলীর সাথে কথা হলে তিনি এ প্রতিবেদকে জানান, আমি এলাকার উন্নয়নের জন্য ব্যাপক কাজ করেছি এবং করব যা ইতিমধ্যে এলাকায় প্রতিফলিত। পাশাপাশি তিনি আরো বলেন, আমি যদি নৌকার টিকিট পায় আর এলাকার জনসাধারণ আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে তাহলে এ ইউনিয়ন কে মডেল ইউনিয়নে রুপান্তর করব ইনশাআল্লাহ।

পাশাপাশি তিনি আরো বলেন, আমার রাজনৈতিক জীবনে আমার ইউনিয়নে কোন রকম রাজনৈতিক দলীয় কোন্দল ছিলো না। এবং আমি যদি আবারও নৌকার টিকিটে পায় গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয় তাহলে আমি অত্র ইউনিয়নের সমস্ত রাজনৈতিক কোন্দল মেটানোর জন্য সচেষ্ট থাকব ইনশাআল্লাহ। তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ হাসিনা দলের জন্য যে সিদ্ধান্ত নিবেন সেটাই আমি সাদরে গ্রহণ করব ইনশাআল্লাহ।

এ ব্যাপারে স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা হলে তারা জানান, অদূর ভবিষ্যতে তাহার কাছ থেকে এলাকার জনগণ আরও সেবামুলক কাজ পেয়ে থাকবেন। মহান আল্লাহ পাক যেন উনাকে তৌফিক দান করেন।সেই সাথে এমন যোগ্য,সৎ,সুশিক্ষিত এবং উদার মানবিক গুন সম্পন্ন ব্যক্তিকে দল তথা এলাকার জনগণ সাদরে গ্রহণ করবেন। তাই গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নবাসীর দাবি আধুনিক প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত এ ব্যক্তিকে নৌকার মনোনয়ন দিয়ে মনোনীত করে আগামীতে নতুনরুপে গোবিন্দপাড়া গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ ইন্জিঃ এনামুল হকের হাতকে শক্তিশালী করতে তার কোন বিক্ল্প নেই।