ঝালকাঠি পৌরসভার প্যানেল মেয়র তরুন কর্মকারকে টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির সংবর্ধনা

রবিবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠি পৌরসভার ১নং প্যানেল মেয়র জননেতা তরুন কুমার কর্মকার বলেন, ছাত্র জীবন থেকে আজ পর্যন্ত আমি এক দিনের জন্য আওয়ামীলীগের রাজনীতি থেকে দূরে থাকিনী। জীবনের শুরু থেকে বঙ্গবন্ধু, জননেত্রী শেখহাসিনা ও জননেতা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমুর নেতৃত্বে রাজনীতির করেছি। জেল-জুলুম, হামলা-মামলা বা কোন লোভ-লালসা আমাকে রাজনীতি থেকে পিছু হটাতে পারেনি। ঝালকাঠির প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে আমি সামনের সাড়িতে থেকেছি ও জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েও পৌরবাসীর সুখ-দুঃখে পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। রাজনীতিকে পুজি করে আমি কোনদিন অর্থ-সম্পদের পিছনে ছুটিনি বা দল ক্ষমতায় থাকার সুযোগে কোন টেন্ডারবাজী, চাদাবাজী বা ভূমি দস্যুতায় জড়িত হইনি। তার প্রতিদানে ঝালকাঠির সর্বমহলের যে নিস্বার্থ ভালোবাসা ও আন্তরিকতা পেয়েছি তাতে নিজেকে ধন্য মনে করছি। পৌরসভার ১নং প্যানেল মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক, আলহাজ্ব আমির হোসেন আমুর আস্থাভাজন ও বার বার নির্বাচিত পৌরকাউন্সিলর তরুন কুমার কর্মকারকে ঝালকাঠি টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির পক্ষ থেকে দেয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের বক্তব্যে এ কথা বলেন।
৯ সেপ্টেম্বর বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় টাউন হলস্থ কার্যালয়ে ঝালকাঠি টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আজমীর হোসেন তালুকদারের সভাপতিত্বে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র জেলা সভাপতি দৈনিক দূরযাত্র সম্পাদক জিয়াউল হাসান পলাশ, টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির সাধারন সম্পাদক শফিউল আজম টুটুল, সিনিয়র সাংবাদিক কেএম মোতালেব হোসেন, জেলা জাতীয় পার্টির নেতা সৈয়দ শহিদ, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ’র জেলা সাধারন সম্পাদক প্রভাষক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র জেলা সাধারন সম্পাদক এমদাদুল হক স্বপন, টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির সদস্য সাইদুর রহমান প্রমুখ।
টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এসএম রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা, বাংলাদেশ মফাস্বল সাংবাদিক ফোরাম, ঝালকাঠি রিপোটার্স ইউনিটি ও ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরামের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।