সাপ্লাই লাইনের পাইপ লিকেজ, রাস্তা ফুঁড়ে বের হয় পানি

মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক//
“পানি মানুষের জীবন বাঁচায়। আবার সেই পানি মানুষকে চরম দূর্ভোগেও ফালায়‌। ঠিক যেন এমনটাই হয়েছে ঝালকাঠির নলছিটিতে।”

উপজেলার পৌরসভা এলাকায় থানা ও ফেরিঘাট রাস্তার সংযোগ পয়েন্টের পূর্ব পাশে অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ নলছিটি – বারইকরন রাস্তার পাশে মাটির নিচে থাকা পৌরসভার পানি সাপ্লাই লাইনের পাইপ লিকেজ হয়ে রাস্তা ফুঁড়ে বের হচ্ছে পানির স্রোত। এছাড়াও আশেপাশের বেশকিছু এলাকাজুড়ে ছোট বড় অনেকগুলো গর্তের সৃষ্টি হয়ে একদিকে যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে নবনির্মিত সড়কটি অপরদিকে হচ্ছে পানি অপচয়। চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন এ রাস্তা দিয়ে নিয়মিত চলাচল কারী পথচারী ও গাড়িচালকসহ আশেপাশের দোকানদাররা। সকাল দুপুর এমন দূর্ভোগে যেন অসহনীয় হয়ে উঠেছে জনজীবন। দীর্ঘদিন যাবত এমন পরিস্থিতি চলতে থাকলেও সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ তুলেছে এলাকাবাসী।

সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী জানায়,’প্রায় ১৫ দিন ধরে চলছে এই বর্ষা দশা। রাস্তায় সারাক্ষণ পানি জমে থাকে। রাস্তায় পানি থাকায় চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে। আশেপাশের দোকান ও বাসা বাড়ির গেটের সামনে জমে থাকে পানি। এতে রাস্তার পাশের মাটিও ধুয়ে সরে যাচ্ছে । যার ফলে বেশ কিছু জায়গা জুড়ে ফাটল দেখা দিচ্ছে। এমনিতেই দীর্ঘদিন সড়কটির অবস্থা বেহাল ছিল। পরে তা মেরামত করা হয়। এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে সড়কটির ভিত্তি নষ্ট হয়ে যাবে। খুব তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা না নিলে বড়ো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করেন তারা।’

এ সড়কের নিয়মিত পথচারী ও গাড়ি চালকরা বলেন, ‘সড়কটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ। উপজেলা থেকে ঝালকাঠি জেলা শহরে প্রবেশের অন্যতম একটি মাধ্যম এ সড়ক। এ সড়ক হয়ে প্রতিনিয়ত হাজার হাজার মানুষ পায়ে হেঁটে ও গাড়িযোগে চলাচল করেন। মাটির নিচের পৌরসভার পানি সাপ্লাইর পাইপ লিকেজ হয়ে রাস্তা ফুঁড়ে পানি বের হওয়ায় প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগ ও মারাত্মক দুর্ঘটনার আশংকা নিয়ে চলাচল করতে হয়। এটি পৌরসভার প্রাণকেন্দ্রে হওয়ার পরেও কারোই যেন নজরে আসছে না বিষয়টি। দ্রুত এর সমাধান না হলে যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।’

এ বিষয়ে নলছিটির পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ ওয়াহেদ খাঁন বলেন, বিষয়টি আমার অবগত ছিল না। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে খুব শীঘ্রই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।