বিষ দিয়ে মাছ শিকারের প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে স্মারক লিপি প্রদান

মঙ্গলবার, জুন ৮, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
ঝালকাঠিতে বিষ প্রয়োগে মাছ শিকার দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। বিষ প্রয়োগ করায় মাছের সাথে অন্যান্য জলজ প্রাণী মরে গিয়ে পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে। এছাড়া শিকার করা বিষাক্ত মাছ খেয়ে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এই জেলায় কিছুদিন পর পর মাছ শিকারিরা বিষ প্রয়োগে মেতে উঠেন। তাদের বিষের ছোবলে মারা পড়ে ছোট-বড় মাছগুলো। বিষের কারণে প্রাকৃতিকভাবে তৈরি মাছের খাবার নষ্ট হওয়াসহ মাছের বংশ বিস্তার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

গত ৫ জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবসে সদর উপজেলার পোনাবালিয়ার ভাড়ানী খাল, দেউরী খাল ও গুরুধাম খালের পানিতে বিষাক্ত পদার্থ (বিষ) প্রয়োগ করেছেন। এতে মাছ আধামরা হয়ে পানির গভীর থেকে উপরে ভেসে উঠেছে। ফলে সহজেই মাছ ধরছেন শিকারিরা।

বিষ প্রয়োগ করে মাছ শিকার করার প্রতিবাদে মঙ্গলবার (৮ জুন) বেলা সাড়ে ১১ টায় ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।

ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের ঝালকাঠি জেলার সমন্বয়কারী তন্ময় চন্দ অভি জানান, প্রতি বছরই বিভিন্ন খালে বিষ ঢেলে মাছ শিকার করা হয়। কিন্তু যারা এসব কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রতি বছর বিষ প্রয়োগের ঘটনা অহরহ ঘটছে। গত ৫ জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবসে বিষ দিয়ে মাছ শিকারের খবর জানতে পাই তাই জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করলাম।

এসময় যুব রেড ক্রিসেন্ট ঝালকাঠি জেলার স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মোঃ সিরাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।