ঝালকাঠির বিনয়কাঠিতে কৃষক পরিবারের উপর সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের

সোমবার, জানুয়ারি ৩, ২০২২

ঝালকাঠি প্রতিনিধি॥ ঝালকাঠি সদর উপজেলার ২নং বিনয়কাঠি ইউনিয়নের আলোকদিয়া গ্রামের কৃষক ও দিনমজুর নারী-পুরুষের উপর সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় ঝালকাঠি সদর থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে। ঝালকাঠির সদর থানার মামলা নং ০১ তারিখ ০১/০১/২০২২ইং। আলোকদিয়া গ্রামের মৃত মোহাম্মদ মাঝির পুত্র মোঃ আনিছ মাঝি বাদী হয়ে শনিবার (০১ জানুয়ারী) ঝালকাঠি সদর থানায় এজাহার দায়ের করেন। এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামীরা হলো আলোকদিয়া গ্রামের লতিফ হাওলাদারের ২ পুত্র নয়ন হাওলাদার ও মনির হাওলাদার, হারুন হাওলাদারের ছেলে ফজলে রাব্বি হাওলাদার, নয়ন হাওলাদারের ছেলে ইমন হাওলাদার, রহমান বাসাইর ছেলে রাবিক বাসাই, জাকির হাওলাদারের ছেলে রিয়াদ হাওলাদার, সোহরাব হাওলাদারের ছেলে সিরাজ হাওলাদসহ ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র জিআই পাইপ, ক্রিকেট স্ট্যাম্প, লোহার রড, রামদা ও লাঠি সোটা নিয়ে ২৮ডিসেম্বর রাত অনুমান সাড়ে ১০টায় বাদী আনিছ মাঝির বড় ভাই ইউনুস মাঝির ঘরে প্রবেশ করিয়া আসবাব পত্র ভাংচুর করে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করে এবং আনিছ মাঝি, ইউনুছ মাঝি, শাহাজাহান মাঝি, রিনা বেগম, নাসিমা বেগমকে বেদম প্রহার। পরের দিন ২৯ ডিসেম্বর সকালে আহত ও ভুক্তভোগীগণ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে হামলার সুবিচার পাওয়ার জন্যে নালিশ দিয়ে বিনয়কাঠি ইউনিয়ন পরিষদ হতে নিজ বাড়ি ফেরার পথে ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মেইন রাস্তায় চেয়ারম্যানের কাছে বিচার দেয়ার অপরাধে বেড়িকেট দিয়ে উক্ত সন্ত্রাসীরা পুনরায় অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে আনিছ মাঝি, ইউনুস মাঝি ও শাহজাহান মাঝিকে হাড় ভাঙ্গা রক্তাক্ত জখম করে রাস্তায় বেহুশ অবস্থায় মৃত্যু ভেবে ফেলে চলে যায়। হামলার সময় আসামীরা আনিছ মাঝির ১৫ হাজার ৫শত টাকা, ইউনুস মাঝির ১৫ হাজার টাকা, শাহজাহান মাঝির ৫২ হাজার টাকা আসামীগণ ছিনাইয়া নিয়ে যায়।”
ঝালকাঠি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খলিলুর রহমান জানান, “এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে তদন্ত চলছে। মামলাটির তদন্তে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।”
ঝালকাঠি থানার এসআই গোবিন্দ কুমার মন্ডল জানান, “ এই ঘটনার দায়েরকৃত মামলার তদন্তভার পেয়ে আমি ঘটনা স্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছি। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ।
অপরদিকে আসামীদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করে কাউকে পাওয়া যায়নি এবং ঘটনা স্থলে গিয়ে চেস্টা করেও কাউকে পাওয়া যায়নি। আসামীরা বর্তমানে গাঢাকা দিয়ে রয়েছে বলে এলাকার একটি সূত্র জানায়।
অত্র ঘটনার প্রত্যক্ষ স্বাক্ষী আলোকদিয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মাঝি জানান, রাত ১০টার পর এলাকার ১৫/২০ জন বকাটে যুবক আমাদের বাড়িতে ঢুকে ইউনুচ মাঝির ঘরে অতর্কিত হামলায় চালায়। পরের দিন সকাল ১০ টায় ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের কাছে ভুক্তভোগীরা নালিশ দিতে গেলে ওই সকল সন্ত্রাসীরা খবর পেয়ে বিনয়কাঠি ইউনিয়ন পরিষদের কাছে বেড়িকেট দিয়ে অমানবিকভাবে হামলায় চালিয়ে মারাত্মক জখম করে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একটি সূত্র জানায় আসামীদের অনেকেই চুরি, মাদক সেবন ও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে এবং তাদের নামে নানা রকম অন্যায় কাজের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও আসামীরা একটি রাজনৈতিক দলের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে এলাকায় অপকর্ম চালিয়ে আসছে।