বাংলাদেশ, ১লা জুন, ২০২০ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ১ ঘন্টার আগে
সর্বশেষ
  ||> জেলায় জেলায় রক্তযোদ্ধাদের সংগঠন প্রতিক্ষনের ভিন্নধর্মী প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন  ||> রাজাপুরে গ্রামে এসে ঢাবি শিক্ষার্থীর মাস্তানিতে এলাকাবাসী আতংকিত  ||> PBRB-এর ১২ তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে পটুয়াখালী জেলার বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি  ||> করোনা তহবিলে ঈদ সালামির টাকা দান করলেন জুই  ||> মাস্ক না পরে বের হলেই ছয় মাসের কারাদণ্ড বা লাখ টাকা জরিমানা  ||>   ||> হাতীবান্ধায় পরিক্ষায় ফেল করায় আত্মাহত্যা ১ ছাত্রীর  ||> খুলনা রেঞ্জের ১০ টি জেলার সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত।  ||>   ||> অনলাইন পত্রিকাগুলো করোনাকালে দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখছে  ||> ঝালকাঠিতে ছাগলে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধকে লাঞ্ছিত, যুবককে গণধোলাই  ||>   ||> ঝালকাঠিতে উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিস কেয়ারটেকার সন্ত্রাসি হামলার শিকার  ||> রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু করোনায়, নতুন শনাক্ত ২৫৪৫  ||> কাল থেকে এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন শুরু  ||> এসএসসি-সমমানে পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ  ||> আয়োজিত হতে যাচ্ছে প্রতিক্ষণ ব্লাড রিজার্ভেশন অব বাংলাদেশ এর ১১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী  ||> আদর্শ ছাত্র বন্ধু ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক নিয়োগ পেলেন পরিমল চন্দ্র বসুনিয়া  ||> ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় আম্ফানে ভাঙ্গন কবলিত বিষখালী নদীর তীরে বেড়িবাঁধ নির্মানণর দাবীতে মানববন্ধন  ||> ঝালকাঠির রাজাপুরে বিয়ের প্রলোভনে অর্থ আত্মসাতকারী প্রতারক চক্রের সদস্য মা-মেয়েকে আটক করেছে ব্যার-৮

Dabanol 24


বরিশালে ক্যাসিনো নাই, আছে একাধিক জুয়ার আসর!

সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ ৮:১৫ অপরাহ্ণ


বরিশালে এখন পর্যন্ত কোন ক্যাসিনোর সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে অভিজাত একাধিক ক্লাবে নিয়মিত বসে জুয়ার আসর। এসব ক্লাবের ছত্রছায়ায় মাদক বেচাকেনার অভিযোগও রয়েছে। বরিশালের অভিজাত দুটি ক্লাবের দায়িত্বে প্রভাবশালীরা। আর অন্যান্য ক্লাবগুলো নিয়ন্ত্রণ করেন ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতারা।

এর আগে বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় নগরীর সদর রোডের ঐহিত্যবাহী মোহামেডান ক্লাবে অভিযান চালিয়ে কয়েকজন রাঘববোয়াল জুয়ারীকে হাতেনাতে আটক করেছিলো র‌্যাব। কিন্তু এরপর গত ১১ বছরেও বরিশালের কোন ক্লাবে হানা দেয়নি আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

বরিশাল নগরীর দক্ষিন সদর রোডে অবস্থিত মোহামেডান স্পোটিং ক্লাব। স্পোটিং ক্লাব নাম হলেও খেলাধুঝলার লেশমাত্র নেই। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ক্রিকেট-ফুটবলসহ বরিশালের কোন পর্যায়ের কোন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মোহামেডানের অংশগ্রহণ দেখা যায়নি। তবে নিয়মিত চলে জুয়ার আসর। মোহামেডান ক্লাবে নিয়মিত যাতায়াতকারী এক ব্যক্তি নাম না প্রকাশের শর্তে জানান, ক্লাবের দুটি কক্ষে তাস দিয়ে গেম (রামি) খেলা হয়। একটি কক্ষে সিনিয়ররা এবং অপর কক্ষে বসেন তুলনামূলক জুনিয়ররা। আকর্ষণ বাড়ানোর জন্য সিমীত অর্থ দিয়ে খেলা হয় রামি। ওই ক্লাবে জুনিয়র কক্ষে মাদকের সহজলভ্য। বছর দুয়েক আগে পুলিশ ফেন্সিডিলসহ মনু নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছিলো মোহামেডান ক্লাব থেকে। বর্তমানে সেখানে ইয়াবাও হাতের নাগালে পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে ওই সূত্র।

এর আগে ২০০৮ সালে সহধর্মীনিদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মোহামেডান ক্লাবে অভিযান চালিয়ে জুয়াখেলারত অবস্থায় নগরীর বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী পরিচিতমুখকে আটক করেছিলো র‌্যাব।

নগরীর অভিজাত বরিশাল ক্লাব লিমিটেডে কেবল সদস্যরা সন্ধ্যার পর গিয়ে অলস সময় কাটান। তারা তাস দিয়ে বিভিন্ন ধরণের খেলা খেলেন। তবে সেটা ২০০-৫০০ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ বলে দাবি একজন অংশগ্রহণকারীর। এই ক্লাবে অনুমোদিতভাবে বিদেশি মদ বিক্রি হয়। ক্লাবের সদস্য ছাড়াও এখানে ইউজার মেম্বর হিসেবে অনেকে মাদক সেবন করেন এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

নগরীর নাজিরের পোল এলাকায় নবজাগরণ ক্লাব ওই এলাকার অপরাধীদের আশ্রয়স্থল বলে পুরনো অভিযোগ রয়েছে। অবাধে জুয়া খেলা ছাড়াও ক্লাবের ছত্রছায়ায় সেখানে সব ধরণের মাদক পাওয়া যায় বলে জনশ্রুতি আছে। ক্লাবটি পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা একজন জনপ্রতিনিধি। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর মাঠ পর্যায়ের কিছু সদস্যের বিরুদ্ধে সেখান থেকে নিয়মিত বখরা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে। এ কারণে নবজাগরণ ক্লাবে কখনোই হানা দেয়ার নজির নেই আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর।

বরিশালের অন্যতম বৃহৎ জুয়া খেলার আসর বসে নগরীর জেলখানা মোড়ে ফ্রেন্ডস সোসাইটিতে। সেখানে গভীর রাত পর্যন্ত তাস দিয়ে বিভিন্ন ধরণের জুয়া খেলার অভিযোগ রয়েছে।

নগরীর নতুন বাজার টেম্পো স্ট্যান্ডে জাগরণী সংঘেও (নতুন নাম বরিশাল সিটি ক্লাব) অর্থ দিয়ে তাস (জুয়া) খেলার অভিযোগ রয়েছে। সেখানে কোন জুনিয়ারের প্রবেশাধিকার নেই। সিনিয়ররা সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সেখানে অর্থ দিয়ে তাস খেলেন। ওই ক্লাবে নিয়মিত যাতায়াতকারী একজন বলেন, যাদের একটু বয়স হয়েছে তারা চায়ের দোকানে গিয়েও আড্ডা দিতে পারেন না। তাই তারা সন্ধ্যার পর ওই ক্লাবে গিয়ে ৫০-১০০ টাকার বাজি ধরে কিংবা বিনিয়োগ করে তাসের বিভিন্ন খেলা খেলে সময় কাটান।

এছাড়াও নগরীর আলেকান্দা সিকদারপাড়ায় এবং সিএন্ডবি পোল এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ছোট ছোট জুয়ার আসর বসানোর অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে।
র‌্যাব-৮’র কমান্ডিং অফিসার আতিকা ইসলাম বলেন, তারাও বরিশালে বিভিন্ন স্থানে জুয়ার তথ্য সংগ্রহ করছেন। সুনির্দিস্ট তথ্য পাওয়া গেলে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ওইসব আস্তানায় অভিযান চালাবে র‌্যাব।

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]