বাংলাদেশ, ১লা জুন, ২০২০ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ৪ ঘন্টা আগে
সর্বশেষ
  ||> ঝালকাঠিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের ঝুঁকি রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে পথ প্রচার  ||> ঝালকাঠি সদর উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে লঞ্চ যাত্রীদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা  ||> জেলায় জেলায় রক্তযোদ্ধাদের সংগঠন প্রতিক্ষনের ভিন্নধর্মী প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন  ||>   ||> ঝালকাঠিতে নবজাতকের লাশ উদ্ধার  ||> রাজাপুরে গ্রামে এসে ঢাবি শিক্ষার্থীর মাস্তানিতে এলাকাবাসী আতংকিত  ||> PBRB-এর ১২ তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে পটুয়াখালী জেলার বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি  ||> করোনা তহবিলে ঈদ সালামির টাকা দান করলেন জুই  ||> মাস্ক না পরে বের হলেই ছয় মাসের কারাদণ্ড বা লাখ টাকা জরিমানা  ||>   ||> হাতীবান্ধায় পরিক্ষায় ফেল করায় আত্মাহত্যা ১ ছাত্রীর  ||> খুলনা রেঞ্জের ১০ টি জেলার সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত।  ||>   ||> অনলাইন পত্রিকাগুলো করোনাকালে দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখছে  ||> ঝালকাঠিতে ছাগলে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধকে লাঞ্ছিত, যুবককে গণধোলাই  ||>   ||> ঝালকাঠিতে উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিস কেয়ারটেকার সন্ত্রাসি হামলার শিকার  ||> রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু করোনায়, নতুন শনাক্ত ২৫৪৫  ||> কাল থেকে এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন শুরু  ||> এসএসসি-সমমানে পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ

Dabanol 24


সড়ক পথে যোগাযোগের স্বপ্ন পূরনের পথে সুগন্ধা নদীর উপর মিলন সেতু নির্মানের প্রস্তাব চুরান্ত

সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯ ১০:১৭ পূর্বাহ্ণ

ঝালকাঠি-নলছিটিবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরনে সুগন্ধা নদীর উপর দিয়ে একটি সেতু নির্মাণের প্রস্তাবনা প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের (সিআইবিআরআর) আওতায় এই সেতুটি নির্মানের প্রস্তাব চুরান্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে ঝালকাঠি এলজিইডি বিভাগ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে প্রস্তবনাটিপ্রেরন করেছে।
ঝালকাঠি এলজিইডির বিভাগ সূত্রে জানাগেছে, ঝালকাঠি-বরিশাল সড়ক সংলগ্ন নলছিটি উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে থেকে সুগন্ধা নদীর প্রান্ত দিয়ে নলছিটি পৌরসভার মাটিভাঙা প্রান্তে সেতুটি নির্মান পরিকল্পনা নিয়ে রোডম্যাপ চুড়ান্ত হয়েছে। এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিন গত ১ সেপ্টেম্বর উত্তমাবাদ-মাটিভাঙা সড়ক পয়েন্টে সুগন্ধা নদীর উপর গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের প্রথম পদক্ষেপ হিসাবে জমি অধিগ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ে ও সিআইবিআরআর প্রকল্প পরিচালক বরাবরে প্রতিবেদন পাঠিয়েছেন।
প্রস্তাবনা পত্রে উল্লেখ করা হয়, ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার বরিশাল-ঝালকাঠি মহাসড়কে ভৈরবপাশা ইউপি ভবন সামনে থেকে, উত্তমাবাদ ও মালিপুর মৌজা থেকে ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ২ কোটি ৪৭ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৮ টাকা প্রাক্কলন ব্যায় ধরা হয়েছে।এদিকে সুগন্ধা নদীতে সেতু নির্মানের প্রস্তাবনা তৈরী করে প্রেরণের খবর ছড়িয়ে পড়লে উপজেলাবাসি আনন্দে মেতে ওঠেছে।
ঝালকাঠি-নলছিটিবাসীর দীর্ঘদিনের প্রানের দাবি ছিলো এ সেতু নির্মানের। সেতুটি নির্মিত হলে উপজেলা শহরের সাথে জেলার দুরত্ব কমার পাশাপাশি পায়রা বন্দর থেকে পটুয়াখালি হয়ে ঝালকাঠির উপর দিয়ে খুলনার সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ চালু হবে। একই সাথে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনমানের অর্থনৈতিক ক্ষেত্রেও আমূল পরিবর্তন আসবে বলে মনে করছেন জেলার ব্যবসায়ী নেতারা ।
এ ব্যাপারে নলছিটি পৌরসভার মেয়র তছলিম উদ্দিন চৌধুরী ও উপজেলা চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান তাদের উচ্ছাসিত প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেন। তারা জানান, ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য আমির হোসেন আমু এমপি অনেক দিন ধরে এ সেতুটি নির্মানে ঐকান্তিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। জাতীয় পর্যায়ের রাজনীতিবীদ ও আমাদের গর্ব এই নেতার কারনেই অতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ সেতুটি নির্মানের প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হওয়ায় সর্বস্তরের জসনাধারন আজ আনন্দিত।
এ ব্যাপারে ভৈরবপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ঝালকাঠি বাসমালিক সমিতির অন্যতম কর্মকর্তা নাসির আহম্মেদ বলেন, নলছিটি-ঝালকাঠি ভূখন্ডের এক মিলন বন্ধন সৃষ্টির মাধ্যমে আমাদের জেলার অভিভাবক সাবেক শিল্পমন্ত্রী জননেতা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু এমপি দলমত নির্বিশেষে এই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে চিরস্থায়ী ও স্মরনীয় হয়ে থাকবেন। এ সেতুর মাধ্যমে যেমন জেলা সদর ও নলছিটি উপজেলাবাসীর দুরত্ব কমে যাবে, তেমনি সাধারন মানুষও উপক্রিত হবেন। আমরা আশা করি শীগ্রই ভূমি অধিগ্রহন প্রস্তবনা অনুমোদনসহ দ্রুত এ সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হবে।
এ ব্যাপারে ঝালকাঠির স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আমীন জানান, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণের প্রকল্প পরিচালক বরাবরে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। বরাদ্ধ পেলেই নিয়মানুযায়ী ভূমি অধিগ্রহন করার কাজ শুরু করা হবে। প্রস্তাবিত জমির পরিমান ১.৩৬৮ একর। এ জমি অধিগ্রহণের জন্য ২ কোটি ৪৭ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৮ টাকা প্রাক্কলন ব্যায় ধরা হয়েছে।

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]