বাংলাদেশ, ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ৬ ঘন্টা আগে
সর্বশেষ
  ||> মা-বাবাকে পিটিয়ে মাদরাসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ  ||> নলছিটিতে দুকসের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত  ||> ঝালকাঠিতে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ  ||> নলছিটিতে বাবার সাথে অভিমানে যুবকের আত্মহত্যা  ||> কাঠালিয়ায় পালিত সাপের দংশনে সাপুরের মৃত্যু  ||> গভীর রাতে শিক্ষকদের বেধড়ক পেটালো পুলিশ  ||> বোরোর লোকসান মাথায় নিয়ে আমন চাষ  ||> আসামি ধরতে ‘হুজুর’ সাজলেন পুলিশ কর্মকর্তা  ||> ঝালকাঠিতে ২ সন্তানের জননীর আত্মহত্যা।  ||> ঝালকাঠিতে সেতু যুব সমিতির ৩৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী  ||> রাজাপুরে অসহায়-দুঃস্থদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের চেক বিতরণ  ||> ফেল করানোর ভয় দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, শিক্ষক আটক  ||> সরকারি হচ্ছে ১০ হাজার শিক্ষকের চাকরি  ||> অতিরিক্ত ভাড়া ও হয়রানি বন্ধে মোবাইল কোর্ট  ||> যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি ২২ বছর পর গ্রেপ্তার  ||> রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল?  ||> নলছিটিতে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক আহত  ||> ডেঙ্গুতে আজ দু’জনের মৃত্যু  ||> পিপলিতায় মাদক মুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষে ফুলবল খেলা অনুষ্ঠিত  ||> মিরপুরে বস্তির আগুন ছড়িয়েছে পাশের ভবনে

Dabanol 24


ঈদে মেহেদি দিয়ে সাজতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী

আগস্ট ১২, ২০১৯ ১০:১৩ পূর্বাহ্ণ

ভোলায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর (১২) আর ঈদ করা হলো না। ঈদের আগের রাতে মেহেদি দিয়ে হাত রাঙাতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়ে রক্তে রঞ্জিত হলো তার শরীর। জীবন-মৃত্যুর মাঝে ছটফট করছে অসহায় ওই কিশোরী। ধর্ষিতাকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলেও অভিযুক্তদের এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি।

ধর্ষিতার পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, ভোলা সদর উপজেলার উপজেলার চর সামাইয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের চর সিফলী গ্রামের কৃষক মো. হানিফ (৪০) ঈদ উপলক্ষে তার আদরের দুই মেয়ের জন্য বাজার থেকে মেহেদি কিনে আনেন। রোববার (১১ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে তাদের বাবা গরু বিক্রি করার টাকা আনতে ভোলা শহরে যান। বাবা শহরে চলে যাওয়ার পর দুই বোন রাত ৮টার দিকে পাশ্ববর্তী দুঃসর্ম্পকের আত্মীয় মাহফুজের স্ত্রীর কাছে হাতে মেহেদি দিয়ে সাজতে যায়। ওই সময় আগে থেকে অপেক্ষমাণ মাহফুজের ঘরের ভাড়াটিয়া ভোলা আদালতের মুহুরী আল আমিন (২৫) ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে ডেকে তার ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় আলমিনের স্ত্রী ঘরে ছিল না। এই সুযোগে হঠাৎ করে ওই ছাত্রীকে আলামিন ও তার সহযোগী বখাটে যুবক মঞ্জুর আলম (৩০) জাপটে ধরে হাত-পা ও মুখে কাপড় বেঁধে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ধর্ষিতার পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ভোলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মমিনুল ইসলাম ধর্ষণের আলামত পেয়েছেন বলে স্বীকার করে জানান, ধর্ষিতার বয়স কম হওয়ায় তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। ধর্ষিতার গোপন অঙ্গ থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। ডাক্তার না থাকায় সেলাই দেয়ার মতো অবস্থাও ভোলায় নেই। ধর্ষিতাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সোমবার (আজ) বরিশালে প্রেরণ করা হবে।’

ভোলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত আল আমিন ও মঞ্জুর আলমকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে

Facebook Comments

পাঠকের মতামত: